ছায়ামানব

SUBHAS GAYEN

 যেদিন তোমায় দেখেছিলাম ঐ বিভৎসতার মাঝে;

বুকের বাতাস আমায় আটকে দিল রক্তের চোরা স্রোতে ।

তোমার অঙ্গুলি -হেলন দিল কীসের ইঙ্গিত?

অসময়ের আমন্রণে আমি বিস্মিত

নাড়িয়ে দিল দুর্ভেদ্য বিশ্বাসের ভিত।।

শত শত লাশের মাঝে একাকী আমার বেঁচে থাকা;

আধখোলা চোখে মুখোশহীন লাশেরা কী বলছে

এটা কি তোমার অজানা?

রক্তমাংসের প্রাচীরের মাঝে থেকে ভেসে আসা সেই আশ্বাস;

মৃত লাশগুলি-ও বোধহয় কান পেতেছিল বেঁধেছিল বুক ভরা বিশ্বাস।।

চারিদিকে ভরে আছে রক্তের সাজানো ছাপ ;

বারূদের গন্ধ প্রতিটা ঘরে ঘরে তার অবাধ আনাগোনা

তবু তুমি সুরক্ষিত তোমার দরজা বন্ধ।

কি ক্ষমতা ঐ কাঁটা তারের ?

যা দিয়ে করছো তুমি দেশভাগ?

এ পারের পাখী ওপারে যাচ্ছে যাক!

মানুষ গুলো পার হলেই যত রাগ?

বর্ডারের দুই পাশে পড়ে থাকা অজস্র লাশের ভিড়;

উন্মত্ত বেগে ছুটতে থাকা একটি-ই প্রশ্ন

কী দোষে হল দুই বঙ্গের অদৃশ্য চির?

সাড়ে তিন হাত জমিতে শুয়ে তবু তারা মহামানব;

জানি তোমার অন্তিম শয্যা ঐ স্বর্ণ পালঙ্ক

তবু তোমার আজন্ম পরিচয় “ছায়ামানব”।।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s